• imamcu07 portfolio

    || Portfolio Of Md.ImAmUdDiN ||

    Here is the portfolio link of imamcu07. It's published with free domain and hosting for testing purpose. To see it on-line, please click on image or title of the slide.

  • imamcu07 portfolio website

    || Personal website of imamcu07 ||

    It's another a portfolio of imamcu07. Also published on free domain and hosting. It's a SEO friendly and responsive personal website to description someone's personal details

  • imamcu07 NextGen-IT

    || NextGen-IT static website ||

    NextGen-IT static website is a one page HTML demo company web page. imamcu07 has published it on web for testing purpose. You can see it on-line by clicking on slide or title.

  • MCPD Certification

    || MCPD Certification Of imamcu07 ||

    Here is the certification profile like of MCPD. After successful completion of C#.NET and ASP.NET course from IDB-BISEW, I have acquired MCPD certification with great help of IDB-BISEW.

  • NextGen-IT blog imamcu07

    || NextGen-IT Blog ||

    It's a NextGen-IT google blog for help, support and service of freelancing / outsourcing. This blog published post against SEO, SMM, Website development, WordPress and many mores.

কাভার লেটার কিভাবে লিখবেন? Writing Cover Letter

কভার লেটার নিয়ে কিছু টিপসঃ 

মার্কেটপ্লেসে যারা কাজ করছে তাদের সবচেয়ে বড় একটি সমস্যা মনে হয় কভার লেটার লেখা নিয়ে। 
আর নতুনদের মদ্ধে তো এ নিয়ে অহরহ প্রশ্ন পাচ্ছি। 
Cover Letter writing imamcu07

আসলে নতুন/অভিজ্ঞ কাউকেই দোষ দিয়ে লাভ নেই। কভার লেটার এর আসলে কোন স্ট্যান্ডার্ড নিয়ম নেই। নিয়ম বলতে গেলে কিভাবে একটা লেখা একজন রিডার মন দিয়ে পরবে বা পরতে আগ্রহ পাবে, সেটা মেইনটেইন করতে পারলেই ভাল কভার লেটার লেখা যায়।

কিছু লেখা আছে আপনি ২ লাইন পরেই আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন, আবার কিছু লেখা পরতে থাকলে পরতেই থাকতে হয়। কভার লেটারএর 'উদ্দেশ্য'ও হতে হবে যেন ক্লায়েন্ট সেটা শেষ পর্যন্ত পরে। 
Cover Letter upwork imamcu07

আমি সাধারনত যে ব্যপারগুলো মাথায় রেখে কভার লেটার লিখি এবং তার ফলো-আপ করি সেগুলো বলার চেষ্টা করছিঃ
১. পুরো প্রজেক্টের সমস্যা এবং সমধান কিভাবে হবে তার ওভারভিউ সুন্দরমত দেয়া।
২. টাইমফ্রেম দেয়া।
৩. সব কিছুতেই ক্লায়েন্টের মতামতের উপর নির্ভর না করে, একজন ভাল কন্সাল্টেনেটের মত ক্লায়েন্টকে প্রজেক্টের বিভিন্ন ব্যপারে সাজেশন দেয়া বা গাইডলাইন দেয়া। তবে সেটা হতে হবে মার্জিত এবং সাবলীল ভাষায়।
৪. প্রতিটি ধাপ প্রফেশনালভাবে সিরিয়াসলি শেষ করা।
৫. কথা বলায় এবং লেখায় কনফিডেন্স ধরে রাখা (ওভার কনফিডেন্ট হয়ে যাবেন না আবার)।
৬. নিজের মতামতকে গুরুত্ব দেয়া। একই সাথে নিজের ভুল মতামতকেও স্বীকার করার মানসিকতা থাকতে হবে।
৭. ক্লায়েন্টের দেয়া ইনপুট গুরুত্ব সহকারে শোনা এবং সে ব্যপারে মতামত দেয়া। ক্লায়েন্টের ভুল থাকলে সেটা সুন্দরভাবে বুঝিয়ে দেয়া।
৮. আস্থার একটা জায়গা তৈরি করা যেন, ক্লায়েন্ট আপনাকে কাজ দিয়ে কিছুটা রিলাক্স করতে পারে। আপনি কাউকে কাজ দিয়ে যদি সেটা নিয়ে টেনশনে থাকতে হয় তাহলে কিন্তু আপনি সেই ওয়ার্কারকে অন্য কোন কাজে আর নিয়োগ দিতে চাইবেন না, অন্যদিকে যাকে কাজ দিয়ে আপনি নিজের অন্য কাজ করতে পারবেন বা নিশ্চিন্তে থাকতে পারবেন, তাকে কিন্তু আপনি বারবার কাজের জন্য কল করবেন। মার্কেটপ্লেসেও ব্যপারটা এমনই। ক্লায়েন্ট সেখানে আসেই নিজের কাজ কমাতে এবং সেই সুযোগে নিজের অন্য কাজ করতে।
৯. যতক্ষণ পর্যন্ত ক্লায়েন্ট কোন ব্যপারে ক্লিয়ার হতে না পারবে সেটা ক্লিয়ার করে দেয়ার চেষ্টা করা।
১০. আর প্রাইসিং এর ক্ষেত্রে আগে থেকেই একটু সুন্দরমত চিন্তা করে নিবেন। প্রাইস হুট হাট কমাবেন না বা বাড়াবেন না। বেস্ট প্র্যাকটিস হলো আপনার সমস্যাটি সমাধানে কত সময় লাগবে সেটা বেড় করার চেষ্টা করা এবং আপনার আওয়ারলি রেট দিয়ে সেটা গুন করে নেয়া।
এগুলোই আমি মোটামুটি মেনে চলার চেষ্টা করি। আপনারাও ট্রাই করে দেখতে পারেন।

লিখেছেনঃ কাজী মামুন। 
Share:

কম্পিউটারের সামনে দীর্ঘক্ষণ বসবেন কীভাবে


প্রতিদিন কম্পিউটারে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করছেন যাঁরা তাঁদের নানা রকম শারীরিক উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

যেমন:

১. কোমর,ঘাড় ও ঊরুতে ব্যথা 
 ২. কাঁধ ও আঙুল অবশ হয়ে আসা 
 ৩. হাতের কবজি ব্যথা, 
 ৪. চোখ লাল হয়ে যাওয়া 
 ৫. চোখ শুকনো বোধ করা ও 
 ৬. মাথাব্যথা। 

 তবে এসব সমস্যার বেশির ভাগ হয়ে থাকে অনুপযুক্ত চেয়ার-টেবিল ও দেহভঙ্গির কারণে।

বসার ভঙ্গি কেমন হবে?
imamcu07 computer sitting

 ১. এমন একটি চেয়ার ব্যবহার করুন, যা আপনার দেহের বাঁকগুলোর সঙ্গে মিশে যায়। চেয়ারে হেলান দিয়ে বসা ভালো।

 ২. আপনার কোমর, ঊরু ও হাঁটু যেন একই সমান্তরালে থাকে। পায়ের পাতা দুটো আরাম করে মেঝেতে বিছিয়ে রাখতে হবে, ঝুলে থাকবে না। হাত দুটো কাজের ফাঁকে চেয়ারের হাতলে বিছিয়ে রাখা যাবে।

 ৩.চেয়ারটির গদি এমন হবে, যা খুব শক্ত নয়, আবার বেশি নরমও নয়।

কম্পিউটারটি কেমন হবে? 

১. কম্পিউটারের মনিটর চোখ থেকে অন্তত ২০ থেকে ২৬ ইঞ্চি দূরে থাকবে। মনিটরের একেবারে ওপরের বিন্দুও যেন চোখের সমান্তরালে থাকে, জোর করে উঁচু হয়ে যেন দেখতে না হয়।

 ২. কম্পিউটার টেবিলের নিচে পা দুটি যথেষ্ট আরাম করে জায়গা পাবে, গাদাগাদি করে থাকবে না।

 ৩. টেবিলের উচ্চতা হবে কনুইয়ের সমান্তরাল। কি-বোর্ড ও মাউসের জায়গাটি আপনার ঊরুর ১ থেকে ২ ইঞ্চি ওপরে থাকবে।

 ৪. কবজি সোজা ও বাহু মেঝের ঠিক ৯০ ডিগ্রি কোণে থাকবে।

 ৫. মনিটর এমন জায়গায় স্থাপন করুন, যেখানে অতিরিক্ত আলোর জন্য চোখে চাপ পড়বে না। যেমন জানালা থেকে একটু দূরে। মাঝে মাঝে বিশ্রাম নিন একটানা বেশি সময় ধরে একই ভঙ্গিতে বসে কাজ করবেন না। কাজের মধ্যে বিশ্রাম নিন। অফিসে দু-এক পাক ঘুরে আসুন। ক্লান্ত লাগলে দাঁড়িয়ে মাংসপেশিগুলো টান টান করে নিন।

মাসল স্ট্রেচিংয়ের কিছু নিয়ম আছে:

 ১. দাঁড়িয়ে হাত মাথার ওপর নিয়ে টান টান করুন।

 ২. মাথা এক দিকের কাঁধের ওপর হেলে কিছুক্ষণ ধরে রাখুন, এবার উল্টো দিকেও তা করুন।

 ৩. কাঁধ দুটোকে কানের কাছাকাছি উঁচু করে ধরুন, কিছুক্ষণ রেখে নামিয়ে নিন।

 ৪. হাত দুটো মুঠো করে সামনে টান টান করে আড়মোড়া ভাঙার মতো করে সামনে-পেছনে আনুন।

৫. মাঝে মাঝে মনিটর থেকে দৃষ্টি ফিরিয়ে বাইরে সবুজ কোনো দৃশ্যে চোখ রাখুন ও চোখের বিশ্রাম নিন।
Share:

imamcu07 || Portfolio video

Hi there, It's me! Muhammad Imam Uddin, imamcu07. Here is a video of my personal portfolio. I have published this video on my personal youtube channel. Please watch this video and say something on about my works as a part of an appreciation. Many many thanx to come here and subscribe my channel to watch the new video.
Share:

Popular

Blogger দ্বারা পরিচালিত.

Recent Posts

Who Am I ?

imamcu07Hi there! It's me, Muhammad Imam Uddin, born & raised in Feni, Bangladesh. I always love to play with codes, blogging, website developing, social networking and...
See More →